Select Page

আন্তর্জাতিক মানের আবাসিক চিকিৎসা কেন্দ্র

দি কেবিন চিয়াং মাই – এশিয়ার শীর্ষ আবাসিক চিকিৎসা কেন্দ্র

যা থাইল্যান্ডের পূর্বাঞ্চলের শহর চিয়াংমাই এর পিং নদীর পাশে অবস্থিত। দি কেবিন অ্যালকোহল (মদ), মাদক এবং প্রক্রিয়া আসক্তির এর আধুনিক আবাসিক চিকিৎসা প্রদান করে । এর আছে রিসোর্ট সদৃশ সাজসজ্জা উষ্ণ সূর্যালোকপূর্ন, মৌসুমী বাগান এবং অভিজাত্যপূর্ন পরিবেশ-যা পূণর্বাসন এবং আসক্তি নিরাময়ের জন্য যথার্থ।

আমাদের স্বতন্ত্র “প্রাচ্য ও পাশ্চাত্যের সম্মিলনে” তৈরি চিকিৎসা ব্যবস্থায় আছে ঐতিহ্যবাহী মনোবিজ্ঞান নির্ভর চিকিৎসা যা পশ্চিমা শিক্ষায় প্রশিক্ষিত মনোবিজ্ঞানী এবং কাউন্সিলর, প্রাচ্যের আরোগ্য লাভের কৌশল যোগব্যায়াম, মাইন্ডফুলনেস অনুশীলন এবং অন্যান্য শারীরিক ও আধ্যাত্মিক চিকিৎসা পদ্ধতি। এই স্বতন্ত্র এবং সফল চিকিৎসা কার্যক্রম আমাদের পুর্নবাসন কেন্দ্র বিশ্বে অগ্রগন্য পুর্নবাসন কেন্দ্র হিসেকে দৃষ্টান্তমুলক খ্যাতি অর্জন করেছে, খরচের হিসেবে যা পশ্চিমা বা উন্নত বিশ্বের যে কোন সেরা ব্যক্তিগত মাদকাসক্তি পূণর্বাসন কেন্দ্রের সমমান বা তার উর্ধ্বে অবস্থান করছে।

বহির্বিভাগীয় বনাম আবাসিক রোগী -কোন চিকিৎসা আমার জন্য সঠিক?

আসক্তির চিকিৎসা প্রদান করা যেতে পারে আবাসিক কেন্দ্রে যেখানে গ্রাহক নূন্যতম ২৮ দিনের আবাসিক চিকিৎসা কার্যক্রমে অংশ নিবে বা বর্হিবিভাগীয় চিকিৎসা কেন্দ্র যেমন ˗“দি কেবিন ঢাকা”-য় যেখানে ক্লায়েন্টরা দৈনিক বা সাপ্তাহিক সেশন-এ অংশ নিতে পারে কিন্তু নিজের বাড়িতে থেকে এবং নিজের কাজকর্ম ঠিক রেখে।

চিকিৎসাধীন অবস্থায় আপনার জন্য কোনটা সঠিক এটা নির্ধারণের জন্য একজন নিবন্ধিত মাদকাসক্তি কাউন্সিলর দ্বারা পরীক্ষিত হওয়া জরুরী, যা মাদক সরিয়ে নেওয়ার পর যে মারাত্মক উপসর্গ তৈরী হয় তা দেখা বা বোঝার জন্য জরুরী। “দি কেবিন ঢাকা”-আপনাকে এই সুবিধা দিবে এবং প্রয়োজনে আপনাকে আবাসিক চিকিৎসাব্যবস্থায় স্থানান্তর করবে।

যাহোক মাদকাসক্তিতে  ভূগছেন এমন অনেক ব্যক্তি/রোগী বহির্বিভাগীয় চিকিৎসা গ্রহণ করে থাকে, যা বর্তমানে ‘দি কেবিন ঢাকা’-তে প্রদান করা হয়ে থাকে (উচ্চ মাত্রার কার্যকরী আসক্তি সম্পর্কে দেখতে ইনফোগ্রাফিক দেখুন)।

আবাসিকভাবে থাকা ছাড়াই বহির্বিভাগীয় ক্লিনিক অথবা ”দিবাকালীন চিকিৎসাকেন্দ্র” আবাসিক পুনর্বাসনের মতোই অনেক ধরনের মানসিক চিকিৎসা দিয়ে থাকে।এই সেবাসমূহ সেইসব ক্লায়েন্টদের দেওয়া হয় যারা এখনও সবকিছু হারিয়ে ফেলেনি এবং যাদের  মেডিক্যাল সাহায্যের প্রয়োজন হয়নি। যাই হোক, “দি কেবিন ঢাকা”-তে আমরা আঞ্চলিক মনোরোগ চিকিৎসকদের সাথে কাজ করি যারা ঢাকায় আপনার চিকিৎসার ক্ষেত্রে কোন ওষুধের প্রয়োজন হয় কি না তা পর্যবেক্ষণ করবেন।

আমাদের কিছু গ্রাহকদের আবাসিক এবং বহির্বিভাগীয় উভয় ধরণের চিকিৎসার প্রয়োজন হয়। এসব ক্ষেত্রে এই ক্লায়েন্টগণ ‘দি কেবিন চিয়াং মাই’-তে প্রাথমিকভাবে আবাসিক চিকিৎসা পাওয়ার পর ‘দি কেবিন ঢাকা’র চিকিৎসায় অংশ নিবে।

দি চিয়াং মাই – এশিয়ার অন্যতম আবাসিক চিকিৎসা কেন্দ্র

থাইল্যান্ডের উত্তরাঞ্চলীয় শহর চিয়াং মাই দেয় উষ্ণ সূর্যালোক, এছাড়া কেবিনের আবাসিক পূণর্বাসন কেন্দ্রের সাথেই আপনি পাবেন বনঘেরা পাহাড়, পিং নদীর কোলঘেষে পুরনো মন্দির। দি কেবিন চিয়াং মাই এর আছে আভিজাত্য সৌন্দর্যের, মৌসুমী আবহ/বাগান এবং রিসোর্ট সদৃশ আবাসন। দি কেবিন চিয়াং মাই অ্যালকোহল, ড্রাগ এবং আসক্তি থেকে মুক্ত হয়ে পূনর্বাসনে মনোনিবেশ করার জন্য যথার্থ জায়গা।

আমাদের চিকিৎসা ব্যবস্থা এমন, যে আমরা পৃথিবীর সব প্রান্তে থেকে সেরে উঠার পদ্ধতিগুলোকে সমন্বিত করি যার ভেতর মনোবিজ্ঞান নির্ভর চিকিৎসা আছে যা পশ্চিমা দক্ষতায় দক্ষ মনোবিজ্ঞানী এবং কাউন্সিলররা দেন এবং পূর্বাঞ্চলীয় রোগমুক্তি পদ্ধতি “ইয়োগা”, মনোযোগপূর্ণ ধ্যান বা মাইন্ডফুলনেস মেডিটেশন এবং অন্যান্য শারীরিক ও আধ্যাত্মিক চিকিৎসা। “প্রাচ্য ও পাশ্চাত্যের সম্মিলন”-আমাদের সফল প্রোগ্রাম যা আমাদের প্রতিষ্ঠানকে বিশ্বের নানা দক্ষ মানুষ এবং প্রতিষ্ঠানের কাছে পরিচিত করেছে। পশ্চিমের স্বনামধন্য এবং শ্রেষ্ঠ পূনর্বাসন কেন্দ্রের মতই আমরা বিশ্বমানের চিকিৎসা দিয়ে থাকি কিন্তু সামান্য খরচে।