Select Page

য় কেবিন ঢাকা -এ কেন ঢাকাবাসী কার্যকরী মারিজুয়ানা/গাঁজা আসক্তির চিকিৎসা পাবেন

আসক্তি দ্রব্যের তালিকায় সারা পৃথিবীতে অ্যালকোহলের পরই মারিজুয়ানা/গাঁজার অবস্থান। বাংলাদেশে কিছু মানুষ গাঁজাকে এ দেশীয় সংস্কৃতির একটি অংশ মনে করে এবং আশেপাশের অনেক দেশের তুলনায়, গাঁজা বহন করা এবং ব্যবহার করার ক্ষেত্রে এদেশের আইনেও বেশ শিথিলতা দেখা যায়। তার মানে অবশ্য এই নয় যে, এ দেশের মানুষ গাজাঁয় আসক্তিতে ভুগছে না।

মনোজগতে একদম ভিন্ন এবং নতুন ধরনের অবাস্তব অবস্থার সৃষ্টি করে বলে গাজাঁ, হাশিশ – এগুলোকে হ্যালুসিনোজেন/ভ্রমসৃষ্টিকারী মাদক বলে। গবেষনায় পাওয়া গেছে, যারা গাঁজা ব্যবহার করেন তাদের মধ্যে ৫-৯% এর উপর নির্ভরশীল হয়ে পড়ে।

মারিজুয়ানার ঝুঁকি বিপদ এবং আইনত এর বৈধতার প্রশ্নে অনেক বিতর্ক চলছে। বিশেষ করে কিছু দেশ ও কিছু রাষ্ট্রে আইনত মারিজুয়ানা/গাজাঁ নেশাজগতের একটি ‘প্রবেশপথ তৈরীকারী ড্রাগ’ যা কিনা যেখানে ব্যবহারকারী অন্যান্য আরো কঠিন এবং বিপদজনক দ্রব্য/ড্রাগ পরীক্ষামূলক হিসেবে গ্রহণ করে এবং সেটার উপর নির্ভরশীল হয়ে পড়ে। অবশ্য আমরা এমন অনেক ক্লায়েন্ট পেয়েছি যারা শুধুমাত্র মারিজুয়ানায় আসক্ত ছিল, তারপরও তাদেরকে এতো বেশী মাত্রায় আসক্ত হতে দেখেছি যে তারা স্বাভাবিক ও কর্মক্ষম একটি জীবন যাপন করতে অপারগ ছিল।

দি কেবিন ঢাকা-য় গাঁজা আসক্তির কার্যকরী চিকিত্‍সা

দি কেবিন ঢাকা-য় আমরা গাঁজা আসক্তির জন্য বহির্বিভাগীয় ব্যবস্থাপনায় সফল চিকিৎসা প্রোগ্রাম দিয়ে থাকি। যদিও মানসিকভাবে আসক্তি সৃষ্টি করে, গাঁজা ছেড়ে দেবার সময় শারিরিকভাবে সামান্য উপসর্গ (উইথড্রয়াল) সৃষ্টি হয় বলে কোন বিলম্ব ছাড়াই এর চিকিৎসা শুরু করা যায়। বিরত থাকার মডেলের সাথে চিন্তন-আচরন (কগনিটিভ বিহেভিয়ার) থেরাপীর সমন্বয়ে আমাদের কাউন্সিলিং প্রোগ্রাম ক্লায়েন্টকে সফল ও স্বনির্ভরভাবে আসক্তিমুক্ত জীবন যাপনের কৌশল শেখার ও চর্চার সুযোগ করে দেয়, যা কিনা মারিজুয়ানা থেকে বিরত থাকার পাশাপাশি অন্যান্য নেশা বা মাদক থেকে দূরে রাখে।

দি কেবিন চিয়াং মাই-এ মারিজুয়ানা/গাঁজা আসক্তির আবাসিক পুনর্বাসন চিকিৎসা

দি কেবিন চিয়াং মাই

দি কেবিন চিয়াং মাই-এ সকল ধরণের বসত্মূগত এবং প্রক্রিয়াগত আসক্তিতে, এমনকি মারিজুয়ানা বা গাজাঁর আসক্তি আক্রান্ত ব্যক্তিদের আবাসিক পুনর্বাসনের চিকিৎসা সেবা প্রদান করা হয়। আমাদের গ্রাহকদের শারিরিক, মানসিক এবং আধ্যাত্মিকভাবে ভালো রাখাকে কেন্দ্র করে মূলত: চিকিৎসা পদ্ধতিসমূহ নির্ধারণ করা হয়। প্রত্যেক ক্লায়েন্টের চাহিদা মতো চিকিৎসা প্রোগ্রামগুলোর পরিকল্পনা ও বাস্তবায়িত হয়ে থাকে, যা এখানকার নিয়োগপ্রাপ্ত পেশাজীবীরা নিশ্চিত করে থাকেন। থাইল্যান্ডের উত্তরের পিং নদীর ঘন সবুজ তীরের একটি শহর চিয়াং মাই এ অবস্থিত “দি কেবিন চিয়াং মাই”-শান্তিপূর্ণ এবং নিরাময় হয় এমন একটি সহায়ক পরিবেশে সপ্তাহে ৭ দিন এবং ২৪ ঘন্টাই আসক্তি নিরাময়ের চিকিৎসা প্রদান করে থাকে।

 

এখনই সাহায্য পেতে

মারিজুয়ানা আসক্তির চিকিৎসা কার্যক্রম সম্পর্কে আরো জানতে বা বাধ্যবাধকতাহীন পরিমাপনের/অ্যাসেসমেন্ট জন্য আজই আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন এবং দেখুন কিভাবে আমরা আপনাকে সাহায্য করতে পারি। আরোগ্যের পথে এখনই আপনার যাত্রা শুরুর জন্য এই পৃষ্ঠার উপরে ডানদিকে সংক্ষিপ্ত ফরমটি পূরণ করুন, অথবা সরাসরি আমাদেরকে ফোন করুন এই নাম্বারে +০১৭৭১৫২৮০৮৬

এখনই আমাদের ফোন করুন
+৮৮০১৭৭১৫২৮০৮৬

আমাদের পুস্তিকা ডাউনলোড করুন